ঢাকা   ২১ অক্টোবর ২০২০ | ৬ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

হালুয়াঘাটে ক্ষতিকর পোকার উপস্থিতি শনাক্তকরনে আমন ধান ফসলে আলোক ফাঁদ

Logo Missing
প্রকাশিত: 02:28:53 pm, 2020-09-30 |  দেখা হয়েছে: 16 বার।


মুহাম্মদ মাসুদ রানা, হালুয়াঘাট প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে আমন ধান ফসলে ক্ষতিকর পোকা শনাক্তকরনে ১১নং আমতৈল ইউনিয়নের বাহির শিমুল ব্লকের সরচাপুর গ্রামে আলোক ফাঁদ পদ্ধতি স্থাপনের মাধ্যমে আমন ধানের পোকা শনাক্তকরণে আলোক ফাঁদ পদ্ধতি নিয়ে সরেজমিনে প্রদর্শনী ও কৃষকদের সাথে আলোচনা ও দিকনির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

গত (২৯ সেপ্টেম্বর) মঙ্গলবার আমতৈল ইউনিয়নের বাহির শিমুল ব্লকের সরচাপুর গ্রামে সন্ধ্যা ৬ টায় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হারুন-অর- রশীদ এর পরিচালনায় প্রধান পরামর্শক, নির্দেশনা প্রদান করেন উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ মাসুদুর রহমান। তিনি দীর্ঘক্ষণ প্রান্তিক কৃষকদের সাথে কথা বলেন এবং এ পদ্ধতির সুফল নিয়ে আলোচনা করেন ও ক্ষতিকর পোকা নিধনের দিকনির্দেশনা দেন।

তিনি আরও বলেন, ধান গাছে ক্ষতিকর বাদামি ঘাসফড়িং, সবুজ ঘাসফড়িং, পাতা মোড়ানো পোকা, গান্ধী পোকা, মাজরা পোকাসহ বিভিন্ন ক্ষতিকর পোকা আক্রমণ করে। এর মধ্যে বাদামি ঘাসফড়িং বা কারেন্ট পোকা সবচেয়ে ক্ষতিকর। এ পোকা যে গাছে আক্রমণ করে, সেই গাছের শিষ সম্পূর্ণভাবে নষ্ট হয়ে যায়। ফলে ফলন কমে যায়। অনেক সময় ফলন নেমে আসতে পারে শূন্যের কোঠায়। তাই কৃষকদের এই প্রযুক্তির প্রতি আকৃষ্ট করতে প্রতি মঙ্গলবার রাতে কৃষকদের ফসলের জমিতে কৃষি কর্মকর্তারা এ কার্যক্রম চালাবেন। কৃষকদের যেন ধান উৎপাদনে খরচ কম হয় সে লক্ষ্যে প্রতি মঙ্গলবার হালুয়াঘাট উপজেলার সবগুলো ব্লকে একযোগে এই কার্যক্রম চালু করেছি। প্রতিটি ব্লকে আমাদের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা কৃষকদের এই আলোক ফাঁদ তৈরিতে সহায়তা করছেন। হালুয়াঘাট উপজেলার সকল কৃষকগণ আলোক ফাঁদের উপকারিতা সম্পর্কে যেন বুঝতে পারে, সে জন্য উঠান বৈঠকসহ বিভিন্ন কার্যক্রম ইতিমধ্যেই আমরা হাতে নিয়েছি।