ঢাকা   মঙ্গলবার ১১ অগাস্ট ২০২০ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

দুইজন শিক্ষকদিয়ে চলছে নালিতাবাড়ীর খালভাংগা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

Logo Missing
প্রকাশিত: 05:13:00 pm, 2020-01-19 |  দেখা হয়েছে: 43 বার।

আব্দুল মোমেন : মাত্র দুইজন শিক্ষক দিয়ে চলছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের একমাত্র প্রাথমিক বিদ্যালয় খালভাংগা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।
খোজনিয়ে জানা যায়, ১৯৮৬ সালে জাতীয় করনকৃত খালভাংগা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বর্তমানে প্রায় ২০০শিক্ষার্থীর জন্য ৫জন শিক্ষক থাকলেও প্রধান শিক্ষক চৈতন্য পাল ১০ অক্টোবর ২০১৯ থেকে কোন কারন উল্লেখ না করে অনুপস্থিত রয়েছে। সহকারী শিক্ষক শারনিন আক্তার ১৬ জানয়ারী থেকে মাতৃত্বকালিন ছুটিতে রয়েছেন। প্রধান শিক্ষকের দাযিত্বে থাকা মোশাররফ হোসেন ১৭জানুয়ারী থেকে আসিটি প্রশিক্ষন এর জন্য জেলা সদর শেরপুরে আছেন।
১৯জানুয়ারী ১১টায় বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে দেখা যায় দুই শিফটের এই বিদ্যালয়ে শিশু ও প্রথম শ্রেণী দুই ক্লাশ একই রুমে একজন শিক্ষক ক্লাশ নিচ্ছে দ্বিতীয় শ্রেণিতে কোন শিক্ষক নেই হই হোল্লোর করছে আর এক জন শিক্ষক ৫ম শেণির বিশেষ ক্লাশ নিচ্ছেন। অর্থাৎ চারটি শেণি কক্ষের জন্য শিক্ষক রয়েছেন মাত্র দুজন। খালভাংগা গ্রামের শিশু শ্রেণিতে ছাত্র কাসাবের মা সপ্না জানান শিশু শ্রেণি ও প্রথম শেণি এক সাথে হওয়ায় ছেলে মেয়েরা ভাল পড়া পাচ্ছে না আলাদা ক্লাশ হলে ভাল হত। শিশুশ্রেণির আরএক ছাত্র নির্জরের মা মায়া রানী পাল বলেন মেডাম নাথাকায় একই রুমে দুই ক্লাশ হওয়ায় পড়ার কোন অগ্রগতি হচ্ছেনা।
সহকারী শিক্ষিকা বকুল রানী পাল বলেন, শিক্ষক সংকটে দুইশেণি ক্লাশ একসাথে নিতে হয় না হলে শিক্ষার্থীরা গোলযোগ করে ক্লাশ নেওয়া যায়না। আরএক শিক্ষিকা জাহানারা খাতুন বলেন বিরতিহিন ৬টি ক্লাশ নিতে হয় যা কস্টকর। ক্লাশ ছাড়াও অন্য কাজ থাকেই। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও নালিতাবাড়ী পৌরসভার কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র সুরুজ্জামান বলেন প্রধান শিক্ষক কাউকে নাবলে বিদেশ চলে গেছে একজন রয়েছে মাতৃত্ব কালিন ছুটি আমি বারবার শিক্ষা কর্মকর্তাদের তাগিত দিচ্ছি শিক্ষক বাড়ানোর কোন কাজ হচ্ছেনা। ফলে সরকারের অতি গুরুত্ব পূর্ণ সার্বজনিন প্রাথমিক শিক্ষা ব্যাবস্থা বেহত হচ্ছে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো: তৌফিকুল ইসলাম বলেন, সমস্যার সমাধান করার প্রক্রিয়া চলছে আশাকরি কয়েকদিনের মধ্যে সমাধান হয়ে যাবে। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফেরদৌসি বেগম বলেন, খোজ নিয়ে কয়েক দিনের মধ্যে ব্যাবস্থা নেব।

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!