ঢাকা   বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

বিক্ষোভের মধ্য জরুরি অবস্থা তুলে নিচ্ছে চিলি

Logo Missing
প্রকাশিত: 06:00:51 pm, 2019-10-28 |  দেখা হয়েছে: 2 বার।

অনলাইন ডেস্ক::চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা সোমবার জরুরি অবস্থা তুলে নিচ্ছেন। তবে বিক্ষোভ এখনও অব্যাহত রয়েছে। দেশটিতে গণবিক্ষোভের প্রেক্ষিতে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে এই জরুরি অবস্থা জারি ছিল।
 
অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সংস্কারের দাবিতে চিলির রাস্তায় দশ লাখেরও বেশি লোকের বিক্ষোভ সমাবেশের মাত্র দুদিনের মধ্যে গত মধ্যরাতে জরুরি অবস্থা তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এর আগে শনিবার সপ্তাহ ধরে রাত্রিবেলা বলবৎ থাকা কারফিউ তুলে নেয়া হয়েছে।
 
গত কয়েক দশকের মধ্যে দেশটিতে সবচেয়ে ব্যাপক এই বিক্ষোভের কারণে কর্তৃপক্ষ গত সপ্তাহে জরুরি অবস্থা ও কারফিউ জারি করে। মেট্রো ভাড়া বাড়ানোকে কেন্দ্র করে ছাত্রবিক্ষোভ পরে গণবিক্ষোভে রূপ নেয়।
 
প্রেসিডেন্ট কার্যালয় থেকে টুইটার বার্তায় বলা হয়, যে সকল অঞ্চল ও শহরে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছিল তা প্রত্যাহার করা হবে। জরুরি অবস্থার কারণে ২০ হাজার সৈন্য ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। এদিকে এ সিদ্ধান্তের একদিন আগে পিনেরো নতুন সরকার গঠনের লক্ষ্যে সকল মন্ত্রীকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন। শনিবার তিনি বলেন, আমরা এখন নতুন বাস্তবতায়। এক সপ্তাহ আগের তুলনায় চিলি এখন ভিন্ন অবস্থায় রয়েছে। বাসস
 
তবে সবকিছুর পরও প্রতিবাদকারীরা রোববার তাদের বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে। গত কয়েকদিনের বিক্ষোভকালে অন্তত ২০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এর মধ্যে লুটেরাদের লাগানো আগুনে প্রাণ হারিয়েছে অন্তত ১০ জন।
 
চিলিতে ১৯৭৩ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত স্বৈরশাসক অগাস্তো পিনোচেট শাসন করেন। দেশটিতে গণতন্ত্র ফেরার পর এতো ব্যাপক ও বিশাল প্রতিবাদ বিক্ষোভ আর হয়নি।
 
জাতীয় মানবাধিকার সংস্থা আইএনডিএইচ বলছে, বিক্ষোভকালে ৫৮৪ জন আহত এবং ২ হাজার ৪১০ জনকে আটক করা হয়েছে।
 
সুত্র/সময়ের আলো