ঢাকা   রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

দুই হাজার আলেম ওলামা শিক্ষক- শিক্ষার্থী সন্ত্রাস মাদক ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে শপথ নিলেন ॥ শেরপুর জেলা পুলিশের শান্তি সমাবেশে

Logo Missing
প্রকাশিত: 09:09:20 am, 2019-10-20 |  দেখা হয়েছে: 7 বার।

 শেরপুর প্রতিনিধি:
“সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ¯েœহ-মাদকের বিরুদ্ধে মমতা, জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে জনার্দন” এ শ্লোগানে শেরপুর জেলা পুলিশের তরফ থেকে এক বিশাল শান্তি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ লাইন্স মাঠে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় দুই হাজার আলেম-ওলামা, ইমাম, মুয়াজ্জিন, মাদরাসা ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক- শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। সমাবেশের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম।

পবিত্র ধর্মগ্রন্থ পাঠের পর ভিন্নধর্মী এ আয়োজন শুরু হয় জেলার ইদ্রিসিয়া কামিল মাদরাসার আলিম প্রথম বর্ষের ছাত্র মোসাদ্দেকের দেশাত্ববোধক গান দিয়ে। “এক নদী রক্ত পেরিয়ে বাংলার আকাশে রক্তিম সূর্য আনলে যারা তোমাদের এ ঋণ কোনদিন শোধ হবেনা।” তার দরাজ কন্ঠে মুক্তিযুদ্ধের এ গান শুনে উপস্থিত অনেকের চোখ পানি ধরে রাখতে পারেনি। পরে হামদ-নাত পরিবেশন করা হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূঁঞা। অনুষ্ঠানের সভাপতি  পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শেরপুর সদর উপজেলার নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম, পৌরসভার প্যানেল মেয়র আতিউর রহমান মিতুল, সদর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার অ্যাড.মোখলেছুর রহমান্ আকন্দ, শেরপুর সরকারী ভিক্টোরিয়া একাডেমীর প্রধান শিক্ষক মো. রেজুয়ান,  ইদ্রিসিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মৌলানা ফজলুর রহমান। কমিউিনিটি পুলিশিং ফোরামের নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শেরপুর সদরের সাধারন সম্পাদক ফখরুল মজিদ খোকন, নালিতাবাড়ীর বিল্লাল হোসেন চৌধুরী, শ্রীবরদীর মোহাম্মদ আলী লাল, ঝিনাইগাতীর বেলায়েত হোসেন প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূঁঞা বলেন, বেশ কয়েক বছর আগে ইফটিজিং এর কারণে অনেকে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ পদক্ষেপে ইতোমধ্যে ইফটিজিং প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। এখন মেয়েরা নিশ্চিন্তে স্কুলে যেতে পারে। এখন প্রধানমন্ত্রী মাদক, জঙ্গীবাদ ও জুয়ার বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষনা দিয়েছেন। তাই এসব নজরে আসার সাথে সাথে পুলিশকে জানাতে হবে। কেউ ছাড় পাবেনা।

পরে অতিরিক্ত ডিআইজি উপস্থিত সকলকে শপথ বাক্য পাঠ করান। শপথে বলা হয় “মাদক নেবো না, সন্ত্রাস জঙ্গীবাদে জড়াবো না, বাল্য বিয়ে করবো না, মানবো না, সইবো না। নিজে ভাল থাকবো। সমাজকে ভাল রাখতে সচেষ্ট হবো।”

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!