ঢাকা   শনিবার ২৪ অগাস্ট ২০১৯ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

নালিতাবাড়ীতে সাপ্তাহীক বাংলার কাগজ সম্পাককে নিয়ে মিথ্যাচার ও ষড়যন্ত্র

Logo Missing
প্রকাশিত: 06:23:23 pm, 2019-08-04 |  দেখা হয়েছে: 74 বার।

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : বাংলার কাগজ টুয়েন্টিফোর ডটকম ও সাপ্তাহিক বাংলার কাগজ এর প্রকাশক-সম্পাদক এবং সি বাংলা টিভি’র চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম মনিরের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও ষড়যন্ত্রে নেমেছে সংঘবদ্ধ চক্র। সম্প্রতি মাদকবিরোধী তৎপরতায় একটি মাদক কারবারী চক্র ও তৎসঙ্গে কিছু রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকা তথ্য সন্ত্রাসী এ কাজ শুরু করেছে।
খুজ নিয়ে জানা গেছে, গেল জুনের উপজেলা পর্যায়ে মাসিক আইন-শৃঙ্খলা সভায় সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম মনির মাদকবিরোধী বক্তব্য তোলে ধরে আইন-শৃঙ্খলায় নিয়োজিত বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এর পরপরই বাংলার কাগজ অনলাইন টুয়েন্টিফোর ডটকম ও কয়েকদিন পর সাপ্তাহিক বাংলার কাগজ-এ এ সংক্রান্ত একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ফলে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত বাহিনীর তৎপরতা আগের চেয়ে বেড়ে যায়। ২৯ জুন রাতে চিরুণী অভিযান চালিয়ে এক রাতেই গ্রেফতার করা হয় ১১জনকে। এরপর প্রতিরাতেই পুলিশি তৎপরতা বেড়ে যায়। ততক্ষণে অবশ্য বেশকিছু বড় মাপের মাদক ব্যবসায়ী গা ঢাকা দিয়ে বসে।
এদিকে একের পর এক মাদক কারবারীরা গ্রেফতার হতে শুরু করলে সংশ্লিষ্ট কিছু মাদক কারবারী বাংলার কাগজ এর প্রকাশক মনিরের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে নামে। একপর্যায়ে সাংবাদিক মনিরের ঘনিষ্ট একজনকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ডিবি পুলিশ দিয়ে ফাঁসিয়ে দেয়া হয়। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, যাকে ফাঁসানো হয়েছে তাকে প্রকাশে কেউ ধূমপান পর্যন্ত করতে দেখননি। একটি বেসরকারী কোম্পানীর প্রতিনিধি হওয়ায় ওই যুবকের পরিবার এখন অসহায় অবস্থায় পড়েছে। এখানেই থেমে থাকেনি ষড়যন্ত্র। মাহফুজুর রহমান সোহান (২০) নামে একজন মাদক ব্যবসায়ী কয়েকদিন আগে জামিনে বেরিয়ে এসে সাংবাদিক মনিরের বিরুদ্ধে ‘ঝড়যধ ঘ’ নামক তার ব্যক্তিগত আইডি থেকে ফেসবুকে অপপ্রচার শুরু করে। তার সাথে যোগ দেয় ‘অভিশপ্ত সত্তা’ ‘আলী আহসান’ ‘অনরফ জধযসধহ’ ইত্যাদি নামে-বেনামে কয়েকটি প্রকৃত ও ফেক আইডি। এসব আইডি থেকে একের পর এক মিথ্যাচার ও অপপ্রচার চালিয়ে আসা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, সাংবাদিক মনিরের সামাজিক ও পারিবারিক ইমেজ ক্ষুন্নের অপচেষ্টার পাশাপাশি নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে চক্রটি। পুলিশি তৎপরতায় নিজেদের মাদক ব্যবসায় বিঘœ ঘটায় চক্রটি সক্রিয় হয়েছে বলে জানিয়েছে বিভিন্ন সূত্র।
বিষয়টি সম্পর্কে সহকারী পুলিশ সুপার নালিতাবাড়ী সার্কেলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমাদের অভিযানে বড় কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী বা ডিলার গা ঢাকা দিয়েছে। আমরা নিয়মিত খোঁজ রাখছি। সন্ধান পাওয়া মাত্রই তাদের গ্রেফতার করা হবে। পাশাপাশি সাংবাদিক মনিরের বিরুদ্ধে অপপ্রচার নিয়ে তিনি আইনগত সহায়তার আশ্বাস দেন এবং অভিযোগ দায়ের করতে পরামর্শ দেন।
এ বিষয়ে সাংবাদিক মনির জানান, মাদক কারবারীর সাথে সম্পৃক্ত এবং রাজনৈতিকভাবে ছত্রছায়ায় থাকা একাধিক যুবক সংঘবদ্ধ ও পরিকল্পিতভাবে আমার ও আমার পরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। আমি এসবের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নিচ্ছি। পাশাপাশি সকলকে অপপ্রচার সম্পর্কে সজাগ থেকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।